মাথা ব্যথা কমানোর ঘরোয়া উপায় সমূহ

আলোচনা দেখাবো কিভাবে মাথা ব্যথা কম হবেন এবং ওয়েট কমানোর জন্য আমাদের যে ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করতে হবে সেই পদ্ধতি গুলোর মধ্যে সর্বোচ্চ যে ধরনের উপায় অবলম্বন করেই তার মধ্যে সবথেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় যেখানে আমাদের কথা বলতে হবে সে বিষয়ে জানতে চেষ্টা করবে এটা কতটা কার্যকরী এবং পরবর্তীতে এ ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করে কিভাবে সফলতা পাওয়া যায় সে সম্পর্কে আপনাকে জানানোর চেষ্টা করা হবে। 

How to  remove headache




মাথা ব্যথা কেন হয়

আমাদের শরীর যেহেতু আছে তাই আমাদের যেকোন সময় থাকা দেখা দিতে পারে তাই আমরা যখন এই ধরনের মাথাব্যথা কি বলবো তখন আমাদের স্বাস্থ্য সম্পর্কে সচেতন হতে হবে এবং জানতে হবে পরবর্তীতে কিভাবে আমি সমাধান করতে পারি আপনি জানবেন যে কী কারণে মাথাব্যথা হয় সেখানে আপনি সঠিক বোধগম্য করআর চেষ্টা করবেন। 

মাথা ব্যথা হওয়ার অনেক কারণ আছে তার মধ্যে অন্যতম হলো আমাদের শরীরে যদি অনেক ধরনের লোক থাকে এবং আমরা বিরক্তিকর অবস্থায় করবে তাহলে এ ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। 

১. অতিরিক্ত ঘুম জাগলে অথবা ঘুমের ব্যাঘাত ঘটলে মাথাব্যথা মতো ঘটনা দেখা দিতে পারে। 

২. অনান ঔষধের পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে আমাদের অনেক সময় মাথা ব্যথা দেখা দেয়। 

৩. মানসিক চাপ এবং দুশ্চিন্তার কারণ যখন আমরা বিরক্ত হয়ে পড়ে তখন ওদের মাথা খেতে পারে। 

৪. অধিক পরিমাণে মোবাইলে স্কুল অথবা কম্পিউটার স্ক্রিনে তাকে থাকার কারণে আমাদের মাথা ব্যাথা। 

৫. অতিরিক্ত খুদাগাবা অনিয়মিত খাবারও দাগ আসার কারণে যায় যে এ ধরনের মাথাব্যথা দেখা দেয়। 

মাথা ব্যথা দূর করার উপায়

যখন আমরা বিভিন্ন কারণে মাথাব্যথা কমলো তখন আমি চেষ্টা করব প্রাকৃতিক উপায়ে আমাদের ঘরের ভিতরে যে ধরনের উপাদান আছে সে ধরনের উপাদান দিয়ে তা নির্ণয় করা অথবা পাশাপাশি প্রাকৃতিক উপাদানের পাব সেগুলোর মাধ্যমে আমরা পেতাম আমিও চেষ্টা করি তাই আপনাদেরকে বলবো কিভাবে আমরা গড়বোই অবলম্বন করে মাথা ব্যথা কমিয়ে ফেলব। 

এ বিষয়ে আমরা যখন কোন ঘটনা নিয়ে আলোচনা করব তখন আমরা করব জয় মাথা ব্যথা অনেক কারণে হয় এবং সেখানে ভিড় করে আমাদেরকে পছন্দ করা মানুষকে ওষুধ গ্রহণ করতে হবে। 

* ঘুমের কারণে মাথায় সমস্যা দেখা করব থাকার চেষ্টা করব। 

মানসিক চাপ থাকে আমাদেরকে সুস্পষ্ট ভাবে বেঁচে থাকতে হবে। 

* যেসব ওষুধের সাথে পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হিসেবে মাথা ব্যথা দেখা দেয় সেসব ওষুধ ব্যবহারের ক্ষেত্রে সর্তকতা অবলম্বন করব। 

* বেশি পরিমাণে মোবাইলের স্ক্রিন অথবা কম্পিউটারে স্কিনে ব্যবহার করব না কেন এটা সমস্যার কারণ। 

* বেশি প্রয়োজন হলে মাথায় একটু পানি ব্যবহারে মানুষের মাথা মুছে ফেলব। 

এছাড়া আমরা যে ধরনের পদ্ধতি অবলম্বন করতে পারে তার মধ্যে গুরুত্বপূর্ণ হল আমরা প্রাকৃতিক ভাবে সমাধান করে এমন খাবার খাবো সেই ধরনের খাবার আমাদের মুখ্যমন্ত্রী আমাদের শরীরের চামড়া মসলা বানানোর ব্যবহার করে থাকে সেক্ষেত্রে। 

যদি হালকা রস করে খাওয়া হয় এবং সেটা যদি শরীরের অন্যান্য অঙ্গ পতঙ্গ উৎপাদনের জন্য কাজ করে তাহলে আমরা পেঁয়াজের রস খেতে পারি শুধুমাত্র মজা করে নির্মাণের ক্ষেত্রে এখন যখন জ্বর মাথা ব্যাথা নিরাময় হবে তখন আপনার কিছু করতে পারে আমাদের অন্যান্য ওষুধের মতো একটি কার্যকরী উপাদান। 

আরো পড়তে পারেন :


মাথা ব্যথা কমানোর প্রাকৃতিক উপায়

প্রকৃতিতে সব ধরনের ঔষধ খাওয়া যায় যে ওষুধগুলো আমরা খুব সহজে এবং সহজলভ্য ভাবে ব্যবহার করতে পারি এগুলো ব্যবহার করতে কত টাকা প্রয়োজন প্রয়োজন  হয় না। 

আজকে আপনাদেরকে দেখাবো কিভাবে কিছু প্রাকৃতিক উপাদান যেমন রান্নাঘরে ব্যবহৃত অতিরিক্ত গরম মসলা আমাদের আশেপাশে এমন কিছু উপাদান আমরা মাথা ব্যথা নিরাময় করার চেষ্টা করব। 

মাথাব্যথা নিরাময়ে আদা 

রান্নাঘরে ব্যবহৃত অতিপরিচিত আমিষ খাবার জন্য দিলে খাওয়া হয় এরকম একটি মসলা বা ভেষজ উদ্ভিদের নাম হচ্ছেআদা। আমরা আমাদের শরীরে মাথায় ব্যথা নিরাময়ের জন্য এই উপাদান ব্যবহার করতে পারি।

 যখন আমাদের মাথায় তখনো সামান্য পরিমাণ আদার রস পরে হালকা পানির সাথে মিশিয়ে আমরা খেয়ে নিবো কিভাবে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বৃদ্ধি পাবে এবং মাথাব্যথা কমাতে সহায়তা করে। 

প্রতিদিন এইভাবে আদার রস এবং নিয়মিত পরিমাণে খেলে এতে আমাদের শরীরের অন্যান্য রোগের পাশাপাশি যখন মাথাব্যথা হবে তখন আমরা এটা ব্যবহার করার অভ্যাস করব। যখন আমরা খাব তখন ক্যাটাগরি খেয়াল রাখব যেন পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা থাকে। 

মাথা ব্যথা নিরাময় পেঁয়াজ

আমরা যখন বিভিন্ন ধরনের উপাদান খাওয়ার জন্য আমাদের রান্না করে রেখে দেই তখন আমাদের মনে হয়। 

যে অনেক কিছু আছে যেগুলো আমরা ব্যবহার করি অনেক সময় তাই আজকে আমি দেখাবো কি ধরনের উপাদান কিভাবে আমরা ওষুধ কি কাজে ব্যবহার করতে পারি। 

যখন একটা পরিবারে কোনো একটি সন্তানের মাথা ব্যথা দেখা দেয় তখন অনেক পুরো পরিবারে পিতা-মাতার অবস্থায় থাকে তারা বুঝতে পারে না কি করবে। 

তাই তাদের জন্য পেঁয়াজ  হচ্ছে একটি গুরুত্বপূর্ণ উপাদান যা আমরা পরস্পরের সামান্য পরিমাণে খেলে আমাদের মাথাব্যথা কমে যেতে পারে আমরা প্রয়োজনে যখন মাথা গলিয়ে খুলে। 

 ফেলল পেঁয়াজের রস খাবো আমাদের শরীরকে সুস্থ রাখার জন্য এইরকম। 



Post a Comment (0)
Previous Post Next Post